শিরোনাম :
যশোরের শার্শায় যৌতুকের টাকা দাবীকে কেন্দ্র করে জামাইয়ের হাতে শ্বশুর খুন বেনাপোল দিয়ে ৩ বছর পর ২০ বাংলাদেশি কিশোর-কিশোরী ভারত থেকে দেশে ফেরত। র‌্যাবের অভিযানে ৬৭ বোতল ফেন্সিডিলসহ দুইজন আটক বিএনপি’র কোন নেতার সম্পৃক্ততা থাকতে পারে না আওয়ামী লীগের কমিটিতে – পূজামন্ডপ পরিদর্শনে এমপি হোসনে আরা বিলুপ্ত প্রায় তাঁত শিল্প নবাগত ইউএনওকে ইসলামপুরে বরণ কালকিনিতে তৌহিদী জনতার সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, তদন্ত ওসিসহ আহত-৪ আ’লীগের দলীয় মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জয়পুরহাটে দুই ইউপিতে পরির্বতন মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে পলাশবাড়ীতে মানববন্ধন মধুপুরে ব্রীজ থেকে এক ভ্যান চালকের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আইহাই ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক চান, তরুণ নেতা জুয়েল

রিপোর্টিং,সাপাহার-নওগাঁ প্রতিনিধি : নওগাঁর সাপাহার উপজেলার আসন্ন আইহাই ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকার প্রার্থী হতে চান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. মোকতার হোসেন জুয়েল। ইতিমধ্যে তিনি প্রতিটি ওয়ার্ডে পাড়া-মহল্লায় এবং অধিকাংশ বাড়ি ঘুরে পরিবারগুলোর খোঁজ খবর নিচ্ছেন। ইউনিয়নবাসীর দোয়া,সমর্থন ও সহযোগিতা কামনা করে উঠান বৈঠক সহ ভোটারদের সাথে মতবিনিময় করছেন।

তিনি ১৯৯৮ হতে ২০০১ সাল পর্যন্ত ছাত্র লীগ সমর্থিত স্কুল শাখার জি এস নির্বাচিত হয়। এরপর ২০০১ হতে ২০০৭ সালে সাপাহার সরকারি কলেজ শাখা ছাত্র লীগের বন ও পরিবেশ সম্পাদক, ২০০৭ হতে ২০১২ সালে আইহাই ইউনিয়ন ছাত্র লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, ২০১২ হতে ২০১৯ সালে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

আওয়ামী লীগে সম্পৃক্ত হওয়ার পর দলীয় কর্মসূচী পালনে এবং আওয়ামী লীগ সরকারের সকল প্রকার উন্নয়ন কর্মকান্ডে ইউনিয়ন পর্যায়ে সততা ও নিষ্ঠার সাথে ভূমিকা পালন করায় এলাকায় দলীয় নেতা-কর্মী সহ সাধারণ জনগনের কাছে আস্থাভাজন হয়ে উঠেন। যার ফল স্বরূপ ২০১৯ সালে আইহাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হন। সম্প্রতি তিনি বৈশ্বিক দুর্যোগ নভেল করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ প্রার্দুভাব বিস্তার রোধে বিশেষ ভূমিকা রাখায় শের-ই-বাংলা এ.কে ফজলুল হক স্বর্ণ পদক পান বলে জানাগেছে।

তিনি বলেন, আমার পরিবার বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে স্বাধীনতার পূর্ব থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত। আমার বাবা মৃত মো. মোজাফ্ফর হোসেন ১৯৭৫ হতে ১৯৮২ সালে আইহাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কোষাধক্ষ, ১৯৮২ হতে ১৯৯৫ সালে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। ১৯৯৫ সালে জননেতা আব্দুল জলিল ও বর্তমান খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি তাঁর দলীয় কর্মদক্ষতা দেখে পুনরায় তাঁকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেন। ২০০৯ সালে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্বে থাকা অবস্থায় তিনি মৃত্যু বরণ করেন। মা মোসাঃ মোক্তাহারা বেগম ২০০৩ হতে ২০১৪ সাল পর্যন্ত ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য এবং ২০১৪ সাল হতে অদ্যবদি পর্যন্ত মহিলা আওয়ামী লীগের সদস্য হিসাবে আছেন।

এছাড়াও আমার স্ত্রী, ভাই এবং চাচারা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পদে থেকে দলীয় সকল কর্মসূচী ও কর্মকান্ডে বিশেষ ভূমিকা পালন করে আসছেন। তিনি আরও বলেন, মসজিদ, মাদরাসা, বিভিন্ন ধর্মীয় ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এবং ক্রীড়া সহ মানুষের কল্যাণে কাজ করা বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনগুলোর উন্নয়নে আর্থিক সহায়তা প্রদান করছি। আওয়ামী লীগ নির্দেশিত সব কর্মসূচী ও সাংগঠনিক সকল কর্মকান্ড সততা ও নিষ্ঠার সাথে অর্পিত দায়িত্ব পালন করছি। দলীয় মনোনয়ন পেলে জয়ের ব্যপারে শতভাগ আশাবাদী জানিয়ে, মুজিব আদর্শে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পতাকা তলে দেশরত্ন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের হাত কে আরও বেশি শক্তিশালী করার লক্ষে আসন্ন আইহাই ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেতে সকলের দোয়া, সমর্থন ও সহযোগিতা কামনা করছি।

চ্যানেল বাংলা লাইভ টিভি

নতুন রুপে নিয়োগপত্র

A House of M.R.Multi-Media Ltd
Design & Development By ThemesBazar.Com